শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট ২০৯ রানে হেরে দুই টেস্টের সিরিজ ১-০ ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টেস্টের দুই ইনিংসেই ব্যাটিংয়ে সুবিধা করতে পারেনি সফরকারী দল। অভিষিক্ত শ্রীলঙ্কান স্পিনার প্রাভিন জয়াউইক্রামার ১১ উইকেটে গুঁড়িয়ে গেছে বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ।
এই সিরিজে কিছুই পাননি, এমনটি মানতে নারাজ বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। তার মতে, এই সিরিজেও প্রাপ্তি আছে বাংলাদেশ দলের।
‘অবশ্যই প্রাপ্তির কিছু না কিছু আছে। সিরিজ হেরেছি এর মানে এই না যে সবকিছু হেরে গিয়েছি। জানি, একটু সমালোচনা হবে। অনেকেই অনেক কথা বলবে। তারপরও অনেক ইতিবাচক দিক আছে আমার কাছে মনে হয়,’ বলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।
সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি হিসেবে মুমিনুল দেখছেন তাসকিন আহমেদের পারফরম্যান্সকে। প্রায় চার বছর পর টেস্ট খেলতে নেমে সিরিজজুড়ে বাংলাদেশের সেরা বোলার ছিলেন এ পেইসার। দুই টেস্ট মিলিয়ে উইকেট শিকার করেছেন আটটি। আরও পেতে পারতেন। যদি না তার বলে একের পর এক ক্যাচ ফেলতেন বাংলাদেশ ফিল্ডাররা।
‘যেটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, আপনারাও হয়তো অপেক্ষায় ছিলেন কোনো পেসার কিছু করতে পারছে কিনা সে ব্যাপারে। সেই হিসেবে তাসকিনকে দেখেছেন। আগের চেয়ে অনেক ভালো এখন। অনেক উন্নতি করেছে। অনেক ইতিবাচক দিক আছে এই টেস্ট সিরিজে,’ বলেন মুমিনুল।
তিনি যোগ করেন, ‘প্রথম টেস্টে আমরা দল হিসেবে খেলতে পেরেছি। দলের সবাই যখন অবদান রাখে তখন দল হিসেবে ভালো করতে পারি। যদি দেখেন তামিম ভাইয়ের দুইটা নব্বই আছে। একটা ৭০ আছে। শান্তর একটা ১৬৩ আছে। মুশফিক ভাই ও লিটনের হাফ সেঞ্চুরি আছে। তাইজুলের ৫ উইকেট আছে।’
আপাতত সিরিজ হারের ক্ষত নিয়েই দেশে ফিরছে মুমিনুলরা। সামনে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে ওয়ানডে সিরিজ। সেই সিরিজের দলে স্বাভাবিকভাবে নেই মুমিনুল।
প্রাপ্তির খাতায় নতুন সংযোজন নিয়ে বাংলাদেশের দলের টেস্ট অধিনায়ককে আপাতত অপেক্ষা থাকতে হবে আরেকটি টেস্ট সিরিজের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *