নিউজিল্যান্ডে দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে রীতিমতা হাঁপিয়ে উঠেছিলেন টাইগার ক্রিকেটাররা। একাকী জীবন আর খোলা আকাশের নিচে বুক ভরে নিশ্বাস নেয়ার সুযোগ মিলেছে পরে, তার আগের ক’টা দিন নাভিশ্বাস উঠেছিল।

এবার শ্রীলঙ্কা গিয়ে কী অবস্থা টাইগারদের? তিনদিনের কোয়ারেন্টাইন কেমন কাটছে? কী অবস্থা টিম বাংলাদেশের? দলের সাথে শ্রীলঙ্কা যাওয়া প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর কথা শুনে মনে হলো টাইগাররা ভালোই আছেন সেখানে।

আজ মঙ্গলবার সকালে জাগো নিউজের সাথে মুঠোফোন আলাপে মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘কোয়ারেন্টাইন মানেই একাকিত্ব। আমরাও এখানে সবাই এক রুমে আবদ্ধ। কোনোরকম বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। সব ক্রিকেটার, কোচিং স্টাফ, ম্যানেজার, অফিশিয়ালস সবার যে যার রুমে আবদ্ধ। থাকতে হবে আরও একদিন। কোনাভাবেই নিজ নিজ রুম থেকে বের হওেয়ার সুযোগ নেই।’

খাবার-দাবার রুমেই দিয়ে যায়। সেটা জানিয়ে নান্নু বলেন, ‘খাবারটা হোটেল স্টাফরা এনে যার যার রুমের বাইরে দরজার পাশে রেখে যায়। রুম সার্ভিস চলে যাওয়ার পর আমরা দরজা খুলে নিজ নিজ খাবার নিয়ে নেই। এভাবেই চলছে সময়। আগামীকাল বুধবার কোয়ারেন্টাইন শেষ হলে হয়তা অন্যত্র খাবারের সুযোগ মিলবে। এরপর বৃহস্পতিবার টিম প্র্যাকটিসও হবে।’

নান্নু আরও একটি তাৎপর্যপূর্ণ তথ্য জানিয়েছেন। সবার জানা, ক্যান্ডিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশ দল বুঝি শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় কোয়ারেন্টাইনে আছে! তবে দল শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় থাকছে না টিম বাংলাদেশ। তারা এখন আছে কলম্বোর কাছে নিগোম্বো নামের এক অন্য শহরে। যেটা কলম্বো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে পশ্চিমে সাড়ে ১২ কিলোমিটার দূরে এবং কলম্বো শহরের উত্তরে।

টিম বাংলাদেশ এখন আছে নিগোম্বোর জেট ইয়াং বিচ হোটেলে। যেটা একদমই সাগর তীরে। একদম সাগরের কোলঘেঁষে। নান্নুর ভাষায়, চমৎকার নৈস্বর্গিক পরিবেশ। একা হোটেল কক্ষে থাকলেও বাইরে তাকালে মন ভরে যায় ক্রিকেটারদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *