ক্যারিয়ারে ব্যক্তিগত অর্জনের সবকিছুই পেয়েছেন। শুধু আক্ষেপ ছিল একটি আন্তর্জাতিক শিরোপার। জীবনের সবকিছুর বিনিময়ে হলেও আর্জেন্টিনার জার্সিতে একটি শিরোপা ছিল মেসির চাওয়া। অনন্য এই অর্জনের পর পরিবারকে ভোলেননি মেসি। মাঠেই ফোন দিয়ে কথা বলেছেন স্ত্রীর সঙ্গে।

শিরোপা জয়ের পর আর আবেগ ধরে রাখতে পারেননি মেসি। মাঠেই ভেঙে পড়েন কান্নায়। দলের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগির পরই তার হাতে দেখা যায় ফোন। সেখানে দেখা যায়, তিনি স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জোর সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলছেন। এমন মুহূর্ত ছুঁয়ে গেছে অনেকের হৃদয়।

সবশেষ ১৯৯৩ সালে কোনো টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছিল আর্জেন্টিনা। এরপর সীর্ঘ ২৮ বছরের অপেক্ষা। পেশাদার ক্যারিয়ারে দেড় দশকের বেশি সময় খেললেও জাতীয় দলের হয়ে এতদিন কোনো শিরোপা জেতেননি মেসি। অবশেষে ব্রাজিলকে ১-০ গোলে হারিয়ে সমাপ্তি হলো সেই শিরোপাখরার।

আর এ কারণেই হয়তো রেফারি শেষ বাঁশি বাজানোর সঙ্গে সঙ্গে কান্নায় ভেঙে পড়েন লিওনেল মেসি। যে কান্না ছিল সুখের, আক্ষেপ ঘোচানোর আনন্দের।

সবশেষ ১৯৮৬ দিয়েগো ম্যারাডোনার হাত ধরে বিশ্বকাপ জিতেছিল আর্জেন্টিনা। এরপর ১৯৯১ ও ১৯৯৩ সালের কোপা আমেরিকাও জিতেছে আলবিসেলেস্তেরা। এরপর আর নিজের জীবদ্দশায় আর্জেন্টিনার আন্তর্জাতিক শিরোপা দেখতে পারেননি দিয়েগো ম্যারাডোনা।

২০০৪, ২০০৭, ২০১৫ ও ২০১৬ সালের কোপা আমেরিকা ও ২০১৪ সালের ফিফা বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা।  কিন্তু ট্রফি নিজেদের করতে পারেননি মেসি। এবার আর ভুল করলেন না সময়ের সেরা ফুটবলার। ব্রাজিল থেকেই ট্রফি নিয়ে দেশে ফিরলো আলবিসেলেস্তেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *