বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন (বিওএ) আয়োজিত বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস ভারোত্তলনে ৭ এপ্রিল, বুধবার পাঁচটি রেকর্ড হয়েছে।

সোনা জয়ের পথে স্ন্যাচ, ক্লিন এন্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত। সোনা জয়ের পথে ক্লিন এন্ড জার্কে রেকর্ড গড়েন ফারজানা আক্তার রিয়া। এছাড়া স্ন্যাচে আরেক রেকর্ড গড়েছেন মনোরঞ্জন রায়।

নারীদের ৬৪ কেজি ওজন বিভাগে বাংলাদেশ আনসারের মাবিয়া আক্তার সীমান্ত সোনা জয়ের পথে স্ন্যাচে রেকর্ড ৮০ কেজি তোলেন এছাড়া ক্লিন এন্ড জার্কে রেকর্ড ১০১ কেজি উত্তোলন করেন তিনি। দুই বিভাগ মিলিয়ে রেকর্ড ১৮১ কেজি তুলে সোনা জিতেছেন মাবিয়া আক্তার।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লিমা আক্তার স্ন্যাচে ৫৯, ক্লিন এন্ড জার্কে ৭৩, মোট ১৩২ কেজি তুলে রুপা জিতেছেন। সিপাহীবাগ যুব সংঘের লাবনী আক্তার স্ন্যাচে ৫৬, ক্লিন এন্ড জার্কে ৬০ কেজি, মোট ১১৬ কেজি তুলে ব্রোঞ্জ জিতেছেন।

ভারোত্তোলন করছেন মাবিয়া

ভারোত্তোলন করছেন মাবিয়া

নারীদের ৭১ কেজি ওজন বিভাগে সোনা জয়ের পথে ক্লিন এন্ড জার্কে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ফারজানা আক্তার রিয়া। স্ন্যাচে ৬০ কেজি তোলার পর ক্লিন এন্ড জার্কে রেকর্ড ৭৮ কেজি তুলেছেন তিনি। সোনা জয়ের পথে মোট ১৩৮ কেজি তুলেছেন এ ভারোত্তলক।রুপা জয়ের পথে বাংলাদেশ আনসারের লামিয়া আক্তার স্ন্যাচে ৫৫ কেজি, ক্লিন এন্ড জার্কে ৭৪ কেজি, মোট ১২৯ কেজি তুলেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ী বাংলাদেশ জেলের চায়না খাতুন স্ন্যাচে ৫২, ক্লিন এন্ড জার্কে ৬৩, মোট ১১৫ কেজি তুলেছেন।

ছেলেদের ৮১ কেজি ওজন বিভাগে সোনা জয়ের পথে বাংলাদেশ আনসারের সুমন চন্দ্র রায় স্ন্যাচে ১১৩, ক্লিন এন্ড জার্কে ১৪৭, মোট ২৬০ কেজি তুলেছেন।

রুপা জয়ের পথে স্ন্যাচে রেকর্ড ১১৭ কেজি তুলেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মনোরঞ্জন রায়। ক্লিন এন্ড জার্কে ১৪১, মোট ২৫৮ কেজি তুলেছেন ২০১০ সালের এসএ গেমসে রুপা জয়ী এ ভারোত্তলক।

ব্রোঞ্জ জয়ী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর দূর্জয় হাজং স্ন্যাচে ১১৫, ক্লিন এন্ড জার্কে ১২৫, মোট ২৪০ কেজি তুলেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *