মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর দেশটির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থা ইউএসএআইডির বরাদ্দ দেওয়া ৪২ মিলিয়ন ডলার প্রত্যাহার করে পুনর্বণ্টনের নির্দেশ দিয়েছেন সংস্থাটির ভারপ্রাপ্ত প্রশাসক গ্লোরিয়া স্টিল।

বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের সম্প্রতি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট বাইডেন মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারির সামরিক অভ্যুত্থানকে দেশটির গণতন্ত্র ও আইনের শাসনে ফিরে যাওয়ার ওপর সরাসরি আক্রমণ হিসেবে অভিহিত করেছেন। অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে ২ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের দৃঢ় অবস্থানের পরিপ্রেক্ষিতে ইউএসএআইডি মিয়ানমারে সহায়তার বিষয়ে পর্যালোচনা করেছে।

ফলে মিয়ানমার সরকারের জন্য বরাদ্দকৃত ৪২ দশমিক চার মিলিয়ন ডলার সহায়তা প্রত্যাহার করে পুনর্বণ্টনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই তহবিল সামরিক বাহিনীকে দেওয়ার পরিবর্তে সে দেশের নাগরিক সমাজকে শক্তিশালী করার জন্য দেওয়া হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

ইউএসএআইডি দ্বিপাক্ষিক কর্মসূচির প্রায় ৬৯ মিলিয়ন ডলার দিয়ে মিয়ানমারের জনগণের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে বলেও এতে জানানো হয়।

এতে আরও বলা হয়, কোভিড-১৯ মোকাবিলা করাসহ মিয়ানমারের জনগণের স্বাস্থ্যসেবা বজায় রাখতে ও উন্নত করতে কাজ চালিয়ে যাব এবং গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা সুরক্ষা, খাদ্য নিরাপত্তা জোরদার করা, স্বাধীন গণমাধ্যমকে সমর্থন এবং সংঘাতময় অঞ্চলে শান্তি ও পুনর্মিলনের জন্য নাগরিক সমাজের দক্ষতা জোরদার করার জন্য কাজ করা অব্যাহত রাখব।

মিয়ানমারের জনগণের জন্য ইউএসএআইডি’র সহায়তা এখন যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *