স্থানীয় পর্যায়ে পর্যটন শিল্পের বিকাশ হলে চাকরি-কর্মসংস্থান বাড়বে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

সোমবার দুপুরে রাঙামাটি চিং হ্লা মং চৌধুরী মারি স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু অ্যাডভেঞ্চার উৎসবের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অ্যাডভেঞ্চারাস হতে ইচ্ছাশক্তির প্রয়োজন। অ্যাডভেঞ্চারাস না হলে জীবনের প্রাপ্তি নেই। আমাদের নতুন প্রজন্মকে ত্যাগী হতে হবে, হতে হবে সোনার মানুষ।

তিনি আরো বলেন, এ দেশে তরুণ প্রজন্মের সংখ্যা বেশি। আগামী ১৫ বছরে এ সংখ্যা আরো বাড়বে। আমাদের আত্মপ্রত্যয় থাকলে এ জাতিকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার, রাঙামাটি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ ইফতেকুর রহমান, ডিসি একেএম মামুনুর রশিদ ও এসপি মীর মোদ্দাচ্ছের হোসেন।

আয়োজকরা জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানের পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিতে সোমবার থেকে শুরু হয়েছে পাঁচদিনের বঙ্গবন্ধু অ্যাডভেঞ্চার উৎসব। এ উৎসবে পর্বতারোহণ, নৌ-বিহার, কায়াকিং, হাইকিং, ট্রেইল রান, টিম বিল্ডিং, ট্রেজার হান্ট, ট্রেকিং, ক্যানিওনিং, ট্রি ট্রেইল, রোপ কোর্স ও জিপলাইনসহ বিভিন্ন ধরনের ইভেন্ট রয়েছে।

উৎসবে তিন পার্বত্য জেলার ৫০ জন ও অন্যান্য জেলার ৫০ জন অংশগ্রহণ করছেন। যাদের প্রত্যেকেই ১৮-৩৫ বছর বয়সী নারী-পুরুষ। এর মধ্যে রাঙামাটির ২০, খাগড়াছড়ির ১৫ ও বান্দরবানের ১৫ জন রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *