কণ্ঠশিল্পী আশিকুর রহমান মেহরাব। তিনি একজন ক্লোজআপ ওয়ান তারকাও। তার স্ত্রী রুশি চৌধুরী। সম্প্রতি এই দম্পতি একটি ছবি ফেসবুকে শেয়ার করেন। সেই ছবিতে ‘নোংরা’ মন্তব্য করায় কয়েকজন ফেসবুক ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন মেহরাবের স্ত্রী রুশি চৌধুরী। থানায় তোলা একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে এ তথ্য জানিয়েছেন রুশি।

মূল ঘটনার বর্ণনা দিয়ে রুশি চৌধুরী বলেন- আমার আর মেহরাবের ছবিতে কয়েকজন নোংরা ভাষায় মন্তব্য করেছে। তারপর আমার ফেসবুক ইনবক্সে একজন বলে, ‘অমুক ভাই বলেছে দেখে কিছু বললাম না।’ এ ধরনের কথোপকথন, বেশ কিছু আজেবাজে গালি-গালাজ করা মন্তব্যসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছি।

রাজনৈতিক পরিচয় ব্যবহার করে যারা ফেসবুকে নোংরামি করে তাদের ধিক্কার জানিয়েছেন রুশি। তিনি বলেন- প্রথমে যে ছেলেটি আমাকে বলেছিল, ‘সবাইকে সমান ভাববেন না, কাদের স্যারও আমাকে ভালো করে চেনেন।’ তাকে নিয়ে লেখার পর এবং তাকে ব্যাপারটা নিয়ে আরো কয়েকজন বলার পর সে এসে আমাকে বলে, ‘মাফ করে দেন, আগে আপনাকে চিনি নাই।’ এর মানে কী? রাজনৈতিক পরিচয় না থাকলে বা ক্ষমতা না থাকলে ফেসবুকে মেয়েদের যা তা বলা যাবে? রাজনৈতিক পরিচয় ব্যবহার করে যারা ফেসবুকে নোংরামি করে এবং পথেঘাটে রাজনীতি বিক্রি করে তাদের ধিক্কার জানাই।

রুশি চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার সাবেক নেত্রী। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থী তিনি। ২০১৯ সালের ৮ জুলাই মেহরাবের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন রুশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *