ধর্ম ডেস্ক:
বিশ্বের অনেক দেশ ও প্রান্তে মুমিন মুসলমান নির্যাতিত। যেখানে আল্লাহ ছাড়া মুমিনের আর কোনো সাহায্যকারী নেই। সেসব স্থান ও অঞ্চলসহ যারা কোনো আশ্রয় নেই, তাদের জন্য মহান আল্লাহ তাআলাই অভিভাবক। আল্লাহ তাদের জন্য যথেষ্ট। কুরআনুল কারিমে মহান আল্লাহ তাআলা মুমিন বান্দাকে তারই কাছে সাহায্য চাওয়ার কথা বলেছেন।

মুমিন মুসলমান যত বিপদ কিংবা মুসিবতের মুখোমুখিই হোক না কেন, মহান আল্লাহর কাছে তাঁরই শেখানো ভাষায় সাহায্য চাইবে। যেভাবে সাহায্য চাওয়ার বিষয়টি ওঠে এসছে কুরআনুল কারিমে।

জীবনের কঠিন বিপদ ও ক্রান্তিকালে হজরত ইউসুফ আলাইহিস সালাম যেভাবে আল্লাহর কাছে সাহায্য কামনা করেছিলেন। তা হতে পারে বিপদ ও ক্রান্তিকালে পড়ে থাকা মুমিন মুসলমানের ফরিয়াদ। তাহলো-

أَنْتَ وَلِيِّ فِي الدُّنْيَا وَالآَخِرَةِ تَوَفَّنِي مُسْلِمًا وَأَلْحِقْنِي بِالصَّالِحِينَ

উচ্চারণ : ‘আংতা ওয়ালিয়্যি ফিদ-দুনইয়া ওয়াল আখিরাতি তাওয়াফফানি মুসলিমাওঁ ওয়া আলহিক্বনি বিস-সালিহিন।’ (সুরা ইউসুফ : আয়াত ১০১)

অর্থ : ‘(হে আল্লাহ!) তুমিই ইহকাল ও পরকালে আমার অভিভাবক; তুমিই আমাকে মুসলিম হিসেবে মৃত্যু দান কর এবং সৎ লোকদের সঙ্গে মিলিত হওয়ার সুযোগ দান কর।’

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে হজরত ইউসুফ আলাইহিস সালামের এ দোয়ার মাধ্যমে যে কোনো কঠিন বিপদ ও ক্রান্তিকালে তাঁরই কাছে সাহায্য লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *