বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই সরকার গণতন্ত্র বিশ্বাস করে না। শুধুমাত্র জনগণকে বোকা বানানোর জন্য, গণতন্ত্রের মুখোশ পরে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা, প্রকৃতপক্ষে এক নেত্রীর শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করেছে।

রোববার (২৫ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি ও সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রুহুল আমিন গাজীকে ষড়যন্ত্রমূলক ও মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে এক মানববন্ধন তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, মিছিল-মিটিং, হরতাল করেছি কিন্তু এখন পর্যন্ত আমরা এই সরকারের টনক নড়াতে পারিনি। রাষ্ট্র পরিচালনায়, দেশের মানুষের সমস্যা সমাধানে, দেশের মানুষের কল্যাণে সমস্ত কিছুতেই এই সরকার সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে।
ফখরুল বলেন, রুহুল আমিন গাজীকে মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুধু একটি বিষয় নয়, অনেক সাংবাদিককে আজ নির্যাতন করা হচ্ছে, নিপীড়ন করা হচ্ছে, সাংবাদিকদের হত্যা করা হয়েছে। সাংবাদিককে হত্যার কোনো বিচার হয় না। আজ সংবাদিকরা লিখতে ভয় পায়। যে আইন করা হয়েছে সেই আইন প্রয়োগ করার কারণে সাংবাদিকরা লিখতে সাহস করে না।

তিনি বলেন, এই সরকার সারা দেশে ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করেছে। এই সরকারের ব্যর্থতার কারণে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান হয়নি। রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করতে এই সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা পরিষ্কার করে বলতে চাই, এই ধরনের অন্যায় অত্যাচার নির্যাতন আর সহ্য করা হবে না। অনেক হয়েছে। এখন পরিষ্কার করে বলতে চাই, অবিলম্বে পদত্যাগ করুন। জনগণের ওপর ভরসা করে নিরেপক্ষ সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *