সবশেষ ৮ জুন দেখা হয়েছিল সুশান্ত-রিয়ার। ওইদিন সুশান্তের কথাতেই নাকি বান্দ্রার কার্টার রোডের অ্যাপার্টমেন্ট ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন রিয়া।
এরপর ৯ তারিখ সুশান্তের ফোন নাম্বারও ব্লক করে দেন তিনি।

১৪ জুন সুশান্তের মৃত্যুর আগে পর্যন্ত অভিনেতার সঙ্গে কোনওরকম যোগাযোগ হয়নি রিয়া চক্রবর্তীর। মুম্বাই পুলিশ, সুপ্রিম কোর্ট এবং সংবাদমাধ্যমে এমনই দাবি করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। তবে মহারাষ্ট্রের এক বিজেপি নেতার দাবি ১৩ জুন অর্থাৎ মৃত্যুর ঠিক আগের রাতে রিয়ার সঙ্গে দেখা করেছিলেন সুশান্ত।

মৃত্যুর আগের রাতে সুশান্তের বাড়িতে কোনও পার্টি হওয়ার জল্পনা আগেই উড়িয়ে দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিং। আপাতত সুশান্তের মৃত্যু মামলার তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই। তবে তদন্তের গতিপ্রকৃতি নিয়ে সিবিআইয়ের তরফে প্রকাশ্যে মুখ খোলা হয়নি।

বিজেপি নেতার দাবি নিয়ে মুখ খুললেন শ্বেতাযদিও রিপাবলিক টিভিতে সম্প্রচারিত ওই রিপোর্টে স্থানীয় বিজেপি নেতা তথা মুম্বাইয়ের বিজেপি সেক্রেটারি বিবেকানন্দ গুপ্তা জানিয়েছেন, একজন নিজের চোখে রিয়া ও সুশান্তকে ১৩ জুন রাতে একসঙ্গে দেখেছেন- এমনই তথ্য একজন তাঁকে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘১৩ জুন রাতে এক বড় নেতার জন্মদিনের পার্টি ছিল এবং অপর এক নেতাও এই জন্মদিনের পার্টির বিষয়টা নিয়ে টুইট করেছিল। তাহলে সেই মন্ত্রী জানেন যে, একটা পার্টি ওই রাতে হয়েছিল এবং কারা সেই পার্টিতে হাজির ছিল। এই ঘটনা ১৩ তারিখ গভীর রাতের, সাক্ষী নিজে আমায় জানিয়েছে রাত ২টা থেকে ৩টার মধ্যে সুশান্ত রিয়াকে ওর বাড়িতে ড্রপ করতে গিয়েছিল। এরপর ১৪ জুন সকালে তাঁকে খুন করে খুব সম্ভবত ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। ’

এই বিষয়টি নিয়ে সিবিআই বা পুলিশকে জানিয়েছেন কিনা প্রশ্ন করা হলে বিবেকানন্দ গুপ্তা বলেন, ‘আমি এই ঘটনাটি টুইট করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে ট্যাগ করেছি। আশা করছি, তা তদন্তকারী সংস্থা ফলো করবেন এবং সিবিআই ডেকে পাঠালে আমি নিশ্চিতভাবে তাঁদের সবটা জানাব। ওই সাক্ষীর নাম এবং পরিচয়ও বলবো। তবে মুম্বাই পুলিশকে আমি কিছু জানাবো না। তাদের উপর আমার আস্থা নেই। ’

এই খবরটি নিজের ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে বিষয়টিকে ‘গেম চেঞ্জার’ বলে দাবি করেন সুশান্তের বড় বোন শ্বেতা সিং কীর্তি। তিনি লেখেন, সত্যি এটা যথার্থ অর্থেই ব্রেকিং নিউজ। একটা গেম চেঞ্জার! একজন সাক্ষী যে বলছে সুশান্ত রিয়ার সঙ্গে ১৩ তারিখ রাতে দেখা করেছিল! সেদিন কী এমন ঘটল যে ভাইকে পরের দিন সকালে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেল?’

সিবিআইয়ের তদন্তের প্রতি পূর্ণ আস্থা রয়েছে- এই মর্মেও এদিন একটি পোস্ট লেখেন শ্বেতা। জানান, আমরা সত্যের খুব কাছাকাছি, আমার আস্থা রয়েছে সিবিআইয়ের উপর। ’

সুশান্তের মৃত্যুতে ধীরগতিতে তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই, এই অভিযোগ উঠলে গত ২৮ সেপ্টেম্বর মাত্র ৩৮ শব্দের একটি প্রেস বিবৃতি জারি করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সেখানে বলা হয়, দায়িত্ব নিয়েই সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা (সিবিআই)। এই মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত প্রত্যেকটি বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *