মাদকাসক্ত কি না সেজন্য প্রস্রাব পরীক্ষা করতে চেয়েছিলো গোয়েন্দারা। কিন্তু মাদকাসক্ত নন সেটা প্রমাণ করতে চিকিৎসকদের হাতে পানি মেশানো প্রস্রাবের নমুনা তুলে দিলেন কন্নড় অভিনেত্রী রাগিনী দ্বিবেদী। তদন্তকারীদের চোখে ধুলো দিতে অভিনব এ উপায় বের করেছিলেন তিনি।

তবে তার সেই চালাকি শেষ পর্যন্ত কাজে লাগেনি। চিকিৎসকদের হাতে ধরা পড়ে যান দক্ষিণী এ অভিনেত্রী। অবশেষে আবারও তাকে প্রস্রাবের নমুনা চিকিৎসকদের হাতে তুলে দিতে হয়েছে।

সুশান্ত সিং রাজপুতের অস্বাভাবিক মৃত্যুর পরেই বলিউডের মাদক যোগ নিয়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়। বেশ উঠেপড়ে তদন্ত শুরু করেছে ভারতের নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। বলিউড থেকে সেই তদন্তের রেশ ছড়িয়ে পড়ছে দেশটির অন্যান্য রাজ্যের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতেও। যার মধ্যে কন্নর অন্যতম।

স্যান্ডেলউডের বেশ কয়েকজন নামী তারকা ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে মাদক সরবরাহ করেন বলে খোঁজ পাওয়া যায়। এরপরই তদন্ত শুরু করে বেঙ্গালুরুর সিটি ক্রাইম ব্রাঞ্চ। সেই প্রেক্ষিতেই গেল ৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে অভিনেত্রী রাগিনী দ্বিবেদীর বাড়িতে হানা দেন তদন্তকারীরা। নানা পরীক্ষা ও তথ্য যাচাই বাছাই শেষে সেদিন সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বৃহস্পতিবার রাগিনীকে মল্লেশ্বরমের কেসি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই ড্রাগ টেস্টের জন্য তার প্রস্রাবের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ইউরিন ড্রাগ টেস্টের মাধ্যমে নির্ধারণ করা হয় গত কয়েকদিনে কেউ মাদক নিয়েছেন কিনা। সিসিবির অভিযোগ, নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে প্রস্রাবের সঙ্গে পানি মিশিয়ে দেন রাগিনী। অভিনেত্রীর জালিয়াতি বুঝতে পেরে চিকিৎসকরা তাকে আবারও পানি পান করিয়ে প্রস্রাবের নমুনা সংগ্রহ করেন।

গোটা বিষয়টি দুর্ভাগ্যজনক ও লজ্জাজনক আখ্যা দেন সিসিবি কর্মকর্তারা। শুক্রবার ম্যাজিস্ট্রেটকেও বিষয়টি জানানো হয়। এরপরেই অভিনেত্রীকে আবারও হেফাজতে নেওয়ার আরজি জানান তদন্তকারীরা। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আরও ৩ দিন পুলিশ রিমান্ডে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *