বাংলানিউজ
দর্শক গ্যালারিতে নকল দর্শক এখন নিয়মিত ঘটনা। কিন্তু সেই নকল দর্শক যদি হয় ওসামা বিন লাদেন, তাহলে ব্যাপারটা কেমন হয়? ঠিক এমনটাই হয়েছে লিডস ইউনাইটেডের ক্ষেত্রে। আর এই ঘটনা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে ইংল্যান্ডের ফুটবলে।

করোনাকাল পাল্টে দিয়েছে অনেককিছুই। বিশেষ করে করোনা সংক্রমণ এড়াতে সামাজিক কিংবা শারীরিক দূরত্ব মেলে চলা এখন অনেক ক্ষেত্রেই বাধ্যতামূলক। ক্রীড়া জগতেও এর প্রভাব পড়েছে ব্যাপক। বিশেষ করে দর্শকভর্তি স্টেডিয়ামে খেলার আয়োজন এখন প্রায় অসম্ভব ঘটনা। ফলে বাধ্য হয়েই ভিন্ন পথে হাঁটছে আয়োজকরা। আর এই নতুন পথে হাঁটতে গিয়ে বড় এক ভুল করে বসেছে লিডস ইউনাইটেড।

ইউরোপের প্রায় সব দেশেই ফুটবল প্রতিযোগিতা ফের শুরু হয়েছে। বাদ যায়নি করোনায় ভয়াবহ বিপর্যয়ের মুখে পড়া ইংল্যান্ডও। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের পাশাপাশি দেশটির দ্বিতীয় পর্যায়ের ফুটবল লিগও শুরু হয়েছে। এই দ্বিতীয় পর্যায়ের লিগের দল লিডস ইউনাইটেড এক ম্যাচে তাদের স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে নকল দর্শক বা কার্ডবোর্ডের তৈরি দর্শকের (ম্যানেকিন দর্শক) ব্যবস্থা করেছিল। এমনটা ইউরোপীয় ফুটবলে এখন নিয়মিত ঘটনা।

স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে থাকা নকল দর্শক সাধারণত আসল দর্শকের বিকল্প হিসেবে রাখা হয়। অর্থাৎ, অনলাইনে টিকিট কেটে রাখার প্রেক্ষিতে প্রতি দর্শকের জন্য একটি করে সিট বরাদ্দ করা হয়। এরপর সেই দর্শকদের কাটআউট ছবি কার্ডবোর্ডের সঙ্গে লাগিয়ে দেওয়া হয়। সেই কার্ডবোর্ড দর্শককে পরে গ্যালারিতে বসিয়ে রাখা হয়। লিডস ইউনাইটেড ঠিক এটাই করেছিল। কিন্তু দর্শকসারির একদম সামনের দিকে বসা সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আল কায়েদার সাবেক প্রধান ওসামা বিন লাদেনের কাটআউট ছবি সম্বলিত কার্ডবোর্ড দেখে সবার চক্ষু চড়কগাছ।

‘বিবিসি’র খবরে জানা যায়, ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই ২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় নিহত বিন লাদেনের কাটআউট সরিয়ে ফেলা হয়। এরপর থেকে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় সে ব্যাপারেও ক্লাবটির পক্ষ থেকে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাতেও সমালোচনা থামানো যায়নি। সমর্থকরা রীতিমত ধুয়ে দিচ্ছেন ক্লাব কর্তৃপক্ষকে।

আগামী শনিবার ফুলহ্যামের বিপক্ষে নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে মুখোমুখি হবে লিডস। গত সপ্তাহে কার্ডিফ সিটির কাছে হেরে যাওয়ায় পরের ম্যাচটি জেতা দলটির জন্য আবশ্যক হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রিমিয়ার লিগে ফেরার বেশ কাছেই আছে দলটি। দ্বিতীয় বিভাগের পয়েন্ট টেবিলে দলটির অবস্থান দ্বিতীয়। তবে শীর্ষে থাকা ওয়েস্ট হ্যামের সঙ্গে দলটির পয়েন্ট ব্যবধান শুন্য। দুই দলেরই পয়েন্ট সমান ৭১ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *