ইরাকের রাজধানী বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জোটের সামরিক ঘাঁটিতে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ হয়েছে। রোববার ভোররাতের এ বিস্ফোরণগুলো রকেট হামলার কারণে ঘটে থাকতে পারে, বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তারা। হামলায় কেউ হতাহত বা কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কিনা তারা তাৎক্ষণিকভাবে তা বলতে পারেননি বলে জানিয়েছে রয়টার্স। বাগদাদের গ্রিন জোনের ভিতরে এই ঘাঁটির পাশেই যুক্তরাষ্ট্রের দ‚তাবাস। প্রায়ই এই দ‚তাবাসের কাছে বা কখনো কখনো দ‚তাবাসটিতেও রকেট হামলা হয়। কোনো পক্ষ এসব হামলার দায় স্বীকার না করলেও যুক্তরাষ্ট্র ইরান সমর্থিত ইরাকি মিলিশিয়া বাহিনীগুলোকে এসব হামলার জন্য দায়ী করে আসছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কাছে বেশ কয়েকটি রকেট আঘাত হেনেছে বলে খবর প্রকাশ হয়েছে। হামলার সময় সতর্কতাম‚লক সাইরেনও বাজানো হয় বলে জানা গেছে। ডিসেম্বরের শেষ দিকে ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় সামরিক ঘাঁটি কে-ওয়ানে রকেট হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের এক সৈন্য নিহত হওয়ার পর তার জের অনেকদ‚র গড়ায়। সৈন্য হত্যার প্রতিশোধ নিতে ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলে দেশটির রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর অন্তর্ভ‚ক্ত হাশেদ আল শাবি মিলিশিয়ার বাহিনীর একটি উপদলের ওপর বিমান হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। এতে ৩০ জনেরও বেশি মিলিশিয়া নিহত হয়। অপরদিকে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের সুরক্ষিত গ্রিন জোনে মার্কিন দূতাবাসের কাছে আবারও রকেট হামলা হয়েছে। দেশটিতে মার্কিন সম্পদের ওপর সর্বশেষ আঘাত হিসেবে রবিবার ভোরে এই হামলা হয়। মার্কিন সামরিক স‚ত্রের বরাতে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, হামলার পর দ‚তাবাস চত্বরে সাইরেন বেজে উঠলেও কতগুলো রকেট আঘাত হেনেছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বাগদাদে মার্কিন বিমান হামলায় কাসেম সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর থেকেই ওয়াশিংটন-তেহরান উত্তেজনা বেড়েছে। ইরান এই হত্যাকান্ডের প্রতিশোধ নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর কয়েক দফায় মার্কিন দূতাবাসের কাঝে রকেট হামলা হয়। গত ২৬ জানুয়ারি দ‚তাবাস চত্বরের অভ্যন্তরেও হামলার ঘটনা ঘটে। রবিবারের হামলাটি ছিল গত বছরের অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া ১৯তম হামলা। রবিবারের হামলা প্রসঙ্গে এএফপির প্রতিনিধি জানিয়েছেন, রকেট হামলার জোরালো শব্দের পর গ্রিন জোনের ওপর দিয়ে বিমান উড়তে দেখা যায়। রয়টার্স, বিবিসি, এএফপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *