সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে গুলশানে সংবাদ সম্মেলন করে আন্দোলনকারী ক্রিকেটাররা। যদিও তখন তারা সিদ্ধান্ত নেননি বিসিবি কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন কি না। তবে, ওই সময় জানান তারা আবারও বৈঠকে বসছেন সিদ্ধান্দ নেয়ার জন্য।

অবশেষে ক্রিকেটাররা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আজই তারা বৈঠকে বসছে বিসিবির সঙ্গে। যেখানে উপস্থিত রয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনসহ প্রভাবশালী বোর্ড কর্মকর্তারা।

সকালেই খবর প্রকাশ হয়, সঙ্কট নিরসনে ওয়ানয়ে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাকে ডেকে নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মাশরাফিকে তিনি দায়িত্ব দেন মধ্যস্থতা করার জন্য। অন্যদিকে, দুপুরের পর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

সাক্ষাৎ করে বেরিয়ে আসার সময়ই তিনি জানিয়েছে, ক্রিকেটারদের দাবি মেনে নিতে তারা প্রস্তুত রয়েছেন। এখন ক্রিকেটাররা তার ডাকে সাড়া দিয়ে আলোচনায় বসলেই হয়। এরপরই সব সমাধান হয়ে যাবে।

সন্ধ্যা ৬টায় গুলশানের সিক্স সিজন্স হোটেলে বৈঠকে বসে আন্দোলনকারী ক্রিকেটাররা। সেখানে আলোচনার পর তাদের হয়ে মিডিয়ার সামনে কথা বলেন, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। তিনি জানান, ১৩ দফা দাবিতে তারা বিকেলের দিকেই বিসিবির কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন, ডাক ও কুরিয়ার যোগে এবং ই-মেইলের মাধ্যমে।

যদিও তখন তিনি জানাতে পারেননি, ক্রিকেটাররা কখন বিসিবির সঙ্গে বৈঠকে বসবে। তবে, এটুকু জানিয়েছেন- ক্রিকেটাররাও চান আলোচনায় বসতে এবং দ্রুত খেলার মাঠে ফিরে আসতে।

এরপর সাকিব আল হাসান বলেন, আমরা এখনই সিদ্ধান্ত নিচ্ছি- কখব বিসিবির সঙ্গে বৈঠকে বসবো। সে জন্য তারা আবারও আলোচানায় বসেন এবং দ্রুততার সঙ্গেই সিদ্ধান্ত নেন- বিসিবির সঙ্গে তারা আলোচনায় বসবেন আজই। সে সিদ্ধান্ত মোতাবেকই ক্রিকেটাররা রওয়ানা হন মিরপুরের পথে।

Comments are closed.