‘মিজানুর রহমান আযহারীকে সতর্ক হবার পরামর্শ’

37

জনপ্রিয় ইসলামী আলোচক মাওলানা মিজানুর রহমান আযহারীকে শব্দচয়নে সতর্ক হবার পরামর্শ দিয়েছেন ইসলামিক স্কলার মাওলানা আহমদউল্লাহ। তিনি আজ ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে এ আহবান জানান।

স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

পাবলিক প্লেসে আমরা কেউ ভালো সেন্সেও নিজের মা-বোন সম্পর্কে এভাবে উক্তি করতে পারবো না, যেভাবে মাহফিলের জনপ্রিয় বক্তা মাওলানা মিজানুর রহমান আযহারী সাহেব উক্তি করেছেন উম্মুল মুমিনীন, রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-এর সহধর্মিনী এবং ইসলামের প্রথম সদস্য খাদীজা (রাদিয়াল্লাহু আনহা) সম্পর্কে। তিনি বলেছেন, ‘‘২৫ বছরের বিশ্ব নবী বিয়ে করলেন ৪০ বছরের বুড়ি খাদিজাকে। বিয়ে করছেন সাইয়্যেদাতুনা খাদিজাকে। আগে দুই বার তালাক খাইছে। অনেক গুলো বাচ্চা জন্ম দিয়ে প্রৌঢ়া। তাগড়া যুবক বিয়ে করলো ৪০ বছরের এক মহিলা,তাও এমন যদি হতো এই মহিলার আগে বিয়ে হয় নাই, ইন্ট্যাক্ট মহিলা; তাও না, ভার্জিন না, উইডো বিধবা, আরমালাহ।’’

তিনি অবশ্যই ভালো সেন্সেই কথাগুলো বলেছেন। কিন্তু উদ্দেশ্য ভালো হলেই কোন আপত্তিকর ও ভুল শব্দের প্রয়োগ সঠিক হয়ে যায় না।
মাওলানা আযহারী অন্য অনেক মাহফিলের বক্তার চেয়ে উত্তম, এতে কোন সন্দেহ নেই। তাঁর বেশিরভাগ আলোচনা ভালো আলহামদুলিল্লাহ। কিন্তু বেশ কয়েকবার তিনি আপত্তিকর শব্দ উচ্চারণ করেছেন। কিছু কিছু অলোচনায় ভুল ও অগ্রহণযোগ্য তথ্যও দিয়েছেন। ভুলগুলো বেশ স্পর্শকাতর এবং ক্রমাগত হওয়ায় এ নিয়ে কথা বলা জরুরী মনে হয়েছে।

তাঁর মতো উদীয়মান অলোচকের উচিত হবে আলোচনায় আরো দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেওয়া। ভালো সিনিয়র উলামাদের নিবিড় তত্বাবধানে থাকা এবং কোন ভুল হয়ে গেলে সাথে সাথে কোন প্রকার অগ্রহণযোগ্য ব্যাখ্যা দাঁড় না করিয়ে সংশোধনী দেওয়া। সেই সাথে প্রতিটি আলোচনার আগে প্রচুর পড়াশোনা করা এবং নেহায়েত ধারণা থেকে কোন কথা না বলা।

খাদিজা (রা:) সম্পর্কে তাঁর ব্যবহৃত শব্দ ও বাচনভঙ্গি খুবই আপত্তিকর। তাঁর উচিত, এই কথামালা প্রত্যাহার করা। হালআমলে তিনি বেশ জনপ্রিয় হওয়ার কারণে তাঁর ভুলগুলোর ক্ষতিও অনেক বেশি। সেজন্য কথাগুলো বলা। আল্লাহ আমাদের সবাইকে সঠিকতার ওপর অটল রাখুন এবং মাওলানা মিজানুর রহমান আযহারীর মাধ্যমে মুসলিম উম্মাহর উপকার করুন।