ভারতে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়ে চরম বিপাকে ফেরদৌস

21

পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন মমতা ব্যানার্জির রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেসের এক প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন বাংলাদেশি চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ।

ভারতের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করার পর ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। সূত্র জানিয়েছে, ভিসা বাতিলের পর পাসপোর্ট জব্দ করে ফেরদৌসকে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের হেফাজতে রাখা হয়েছে।

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, নরেন্দ্র মোদির দল বিজেপি ফেরদৌসের গ্রেফতার চায়। তবে বাংলাদেশ হাইকমিশনের হস্তক্ষেপে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে।

ভারতীয় সরকারি সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, অন্য দেশের নাগরিক তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিচ্ছে; এমন অভিযোগ পাওয়ার পর ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রিজিওনাল ফরেইনার্স রেজিস্ট্রেশন অফিসের কাছে এ বিষয়ে ব্যাখ্যাসহ প্রতিবেদন চেয়েছে।

কলকাতার ফরেনার্স রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিস থেকে ফেরদৌসের বিষয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, লোকসভার নির্বাচনী প্রচারণায় একজন প্রার্থীর পক্ষে অংশগ্রহণ করে তিনি ভিসার শর্ত ভঙ্গ করেছেন।

এ বিষয়ে চিত্রনায়ক ফেরদৌস সংবাদমাধ্যমকে জানান, তিনি ব্যবসায়-সংক্রান্ত ভিসা নিয়ে ভারতে গিয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, গত রোববার ফেরদৌস পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ আসনে তৃণমূল প্রার্থী কানাইলাল আগরওয়ালের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন কলকাতার আরো দুজন চিত্রনায়ক ও নায়িকা তারকা অঙ্কুশ হাজরা ও পায়েল।

যমুনা