কাঁচা মরিচের অনেক ঔষধি গুণ রয়েছে। এবার কাঁচা মরিচের ৫ গুণ জেনে নিন

188

সুগার নিয়ন্ত্রণে বড় ভূমিকা রয়েছে কাঁচা মরিচের। যারা ডায়াবেটিসে ভুগছেন তাদের জন্য কাঁচা মরিচ খুবই উপকারী। কাঁচা মরিচের মধ্যে থাকা একটি উপাদান রক্তে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

  • ওজন কমাতে মোক্ষম কাজ দেয় কাঁচা মরিচ। এর মধ্যে থাকে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও জিরো ক্যালোরি। কাঁচা মরিচ খেলে কারও পরিপাক প্রক্রিয়া অন্তত তিন ঘণ্টা ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যায়। এতে দ্রুত ওজন কমতে সাহায্য করে।

    ওজন কমাতে মোক্ষম কাজ দেয় কাঁচা মরিচ। এর মধ্যে থাকে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও জিরো ক্যালোরি। কাঁচা মরিচ খেলে কারও পরিপাক প্রক্রিয়া অন্তত তিন ঘণ্টা ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যায়। এতে দ্রুত ওজন কমতে সাহায্য করে।

  • কোনও দুর্ঘটনায় প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে মসলাদার কিছু খেলে ভালো কাজ দেয়। এর মধ্যে যদি কাঁচা মরিচ থাকে তাহলে আরও ভালো। কাঁচা মরিচের মধ্যে থাকে ভিটামিন ‘কে’। এটি রক্তসঞ্চালনে সাহায্য করে।

    কোনও দুর্ঘটনায় প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে মসলাদার কিছু খেলে ভালো কাজ দেয়। এর মধ্যে যদি কাঁচা মরিচ থাকে তাহলে আরও ভালো। কাঁচা মরিচের মধ্যে থাকে ভিটামিন ‘কে’। এটি রক্তসঞ্চালনে সাহায্য করে।

  • ঠান্ডার সঙ্গে লড়তে সাহায্য করে কাঁচা মরিচ। হঠাত ঠান্ডা লাগার সমস্যা ও সাইনাসের সমস্যা থেকে বাঁচায় কাঁচা মরিচের থাকা ক্যারাসাসিন।

    ঠান্ডার সঙ্গে লড়তে সাহায্য করে কাঁচা মরিচ। হঠাত ঠান্ডা লাগার সমস্যা ও সাইনাসের সমস্যা থেকে বাঁচায় কাঁচা মরিচের থাকা ক্যারাসাসিন।

  • হাড় শক্ত করতে কঁচা মরিচের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। কাঁচা মরিচের থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ। ফলে এটি শুধুমাত্র হাড় শক্তই করে না বরং দাঁতকেও মজবুত করে।

    হাড় শক্ত করতে কঁচা মরিচের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। কাঁচা মরিচের থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ। ফলে এটি শুধুমাত্র হাড় শক্তই করে না বরং দাঁতকেও মজবুত করে।